1. admin@fenirzamin.com : admin :
  2. piashwater@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
নানা আয়োজনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন - ফেনীর জমিন
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অনিবন্ধিত সব অনলাইন বন্ধ করে দেওয়া সমীচীন হবে না: ড.হাছান মাহমুদ ‘বন্ধু মহল’ ফেনী জেলা শাখার ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত মুহুরী প্রজেক্টে রাস্তা দখলের অভিযোগে সরেজমিন পরিদর্শন করেন পাউবো কর্মকর্তা ফেনীর সময় বৃক্ষায়ণ কর্মসূচী শুরু চার দফা বাস্তবায়নের দাবি নিয়ে ফেনীতে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের মানববন্ধন ফেনীতে নারী, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, বিদেশ ফেরত কর্মী ও আদিবাসী শিক্ষার্থী অন্তভূক্তিকরনের উপর কর্মশালা ও সামাজিক সংলাপ অনুষ্ঠিত আস্থার ২২ বছরে বিসিএস কম্পিউটার সিটি, চলছে ৪ দিনব্যাপী আয়োজন ফেনী সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত দাগনভূঞায় ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে ব্যবসায়ীর ৪ লাখ টাকা ছিনতাই ডিক্লারেশন পেল সাহিদা সাম্য লীনা সম্পাদিত সাপ্তাহিক ফেনীর আঁচল
আক্রান্ত

১,৫৪০,১১০

সুস্থ

১,৪৯৭,০০৯

মৃত্যু

২৭,১৪৭

  • জেলা সমূহের তথ্য
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২,৭১৪
  • বরগুনা ১,০০৮
  • বগুড়া ৯,২৪০
  • চুয়াডাঙ্গা ১,৬১৯
  • ঢাকা ১৫০,৬২৯
  • দিনাজপুর ৪,২৯৫
  • ফেনী ২,১৮০
  • গাইবান্ধা ১,৪০৩
  • গাজীপুর ৬,৬৯৪
  • হবিগঞ্জ ১,৯৩৪
  • যশোর ৪,৫৪২
  • ঝালকাঠি ৮০৪
  • ঝিনাইদহ ২,২৪৫
  • জয়পুরহাট ১,২৫০
  • কুষ্টিয়া ৩,৭০৭
  • লক্ষ্মীপুর ২,২৮৩
  • মাদারিপুর ১,৫৯৯
  • মাগুরা ১,০৩২
  • মানিকগঞ্জ ১,৭১৩
  • মেহেরপুর ৭৩৯
  • মুন্সিগঞ্জ ৪,২৫১
  • নওগাঁ ১,৪৯৯
  • নারায়ণগঞ্জ ৮,২৯০
  • নরসিংদী ২,৭০১
  • নাটোর ১,১৬২
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৮১১
  • নীলফামারী ১,২৮০
  • পঞ্চগড় ৭৫৩
  • রাজবাড়ী ৩,৩৫২
  • রাঙামাটি ১,০৯৮
  • রংপুর ৩,৮০৩
  • শরিয়তপুর ১,৮৫৪
  • শেরপুর ৫৪২
  • সিরাজগঞ্জ ২,৪৮৯
  • সিলেট ৮,৮৩৭
  • বান্দরবান ৮৭১
  • কুমিল্লা ৮,৮০৩
  • নেত্রকোণা ৮১৭
  • ঠাকুরগাঁও ১,৪৪২
  • বাগেরহাট ১,০৩২
  • কিশোরগঞ্জ ৩,৩৪১
  • বরিশাল ৪,৫৭১
  • চট্টগ্রাম ২৮,১১২
  • ভোলা ৯২৬
  • চাঁদপুর ২,৬০০
  • কক্সবাজার ৫,৬০৮
  • ফরিদপুর ৭,৯৮১
  • গোপালগঞ্জ ২,৯২৯
  • জামালপুর ১,৭৫৩
  • খাগড়াছড়ি ৭৭৩
  • খুলনা ৭,০২৭
  • নড়াইল ১,৫১১
  • কুড়িগ্রাম ৯৮৭
  • মৌলভীবাজার ১,৮৫৪
  • লালমনিরহাট ৯৪২
  • ময়মনসিংহ ৪,২৭৮
  • নোয়াখালী ৫,৪৫৫
  • পাবনা ১,৫৪৪
  • টাঙ্গাইল ৩,৬০১
  • পটুয়াখালী ১,৬৬০
  • পিরোজপুর ১,১৪৪
  • সাতক্ষীরা ১,১৪৭
  • সুনামগঞ্জ ২,৪৯৫
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট

নানা আয়োজনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

  • Update Time : শনিবার, ২৭ মার্চ, ২০২১
  • ৩৮ ভিউ

নিজস্ব প্রতিবেদক:মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে শুক্রবার রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে এবারের উদযাপনটি ছিল ব্যতিক্রম। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর সাথে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী একই সূত্রে গ্রথিত হওয়ায় অনুষ্ঠানমালায় ছিল ভিন্ন আমেজ। প্রতিবেশী দেশগুলোর রাষ্ট্রনায়ক ও সরকারপ্রধানরা ঢাকায় উপস্থিত হয়ে এবারের স্বাধীনতা উদযাপনে দিয়েছেন ভিন্নমাত্রা, যা বাংলাদেশের জন্য এক অন্যরকম সম্মানের প্রাপ্তি। বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা-বাসস জানিয়েছে, মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সীমিত আকারে রাষ্ট্রীয় এই অনুষ্ঠান পালন করা হয়েছে।

যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালন উপলক্ষে এবার জাতীয় পর্যায়ে কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। শুক্রবার প্রত্যুষে রাজধানীতে একত্রিশবার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির সূচনা হয়।

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার সকালে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
পুষ্পস্তবক অর্পণের পর ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় তিন বাহিনীর একটি সুসজ্জিত দল রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শন করে এবং বিউগলে করুণ সুর বেজে ওঠে। পরে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী সেখানে রক্ষিত পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করেন।

এ সময় জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা, আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ, পদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এরপর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলের সিনিয়র নেতাদের সাথে নিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে স্মৃতিসৌধের বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

রাষ্ট্রীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হওয়ার পরপরই সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া জাতীয় স্মৃতিসৌধের মূল ফটক। জাতীয় স্মৃতিসৌধের মূল ফটক খুলে দেয়ার সাথে সাথে জাতীর শ্রেষ্ঠসন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে স্মৃতিসৌধে সাধারণ মানুষের ঢল নামে। এ সময় জাতীয় পার্টি, বিএনপি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতারা জাতীয় স্মৃতিসৌধের মূল বেদিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো, জাতীয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এবং এর বিভিন্ন হল, আওয়ামী যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, গণবিশ্ববিদ্যালয়, ন্যাপ, গণফোরাম, গণতন্ত্রী পার্টি, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ’৭১, ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি, মহিলা পরিষদ, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর, বাংলা একাডেমিসহ সরকারি- বেসরকারি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ফুলেল শ্রদ্ধা জানান বীর শহীদদের প্রতি।

সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধ থেকে ফিরে ধানমন্ডি বত্রিশ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে রক্ষিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
পরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলের নেতাদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, ডা: দীপু মনি ও আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, সংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, এস এম কামাল হোসেন ও মির্জা আজম, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, উপদফতর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরের প্রধান সড়ক ও সড়কদ্বীপ সুসজ্জিত করা হয় জাতীয় পতাকায়। সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি ভবনে উত্তোলন করা হয় জাতীয় পতাকা।
জেলা-উপজেলা পর্যায়ে এবং বিভিন্ন দেশে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশনেও স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা সভা ও বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন আলোকচিত্র প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, সড়কে অলঙ্করণ, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি পালন করে উৎসবমুখর পরিবেশে।

দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বাংলাদেশ টেলিভিশন, বেতারসহ বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশনগুলো বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার এবং সংবাদপত্রগুলো বিশেষ সংখ্যা ও নিবন্ধ প্রকাশ করে।

এ ছাড়া সকালে প্রধানমন্ত্রী প্রতি বছরের মতো এবারো স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে মোহাম্মদপুরে শহীদ পরিবার ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের জন্য ফুল, ফল ও মিষ্টি পাঠিয়েছেন।

এ দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ‘মুজিব চিরন্তন’ শীর্ষক মূল প্রতিপাদ্যের ১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালা গতকাল শুক্রবার শেষ হয়েছে। শেষ দিনের অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য ছিল ‘স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর ও অগ্রগতির সুবর্ণরেখা’।

জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
আলোচনা পর্বে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী। অনুষ্ঠানের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্য প্রদানের পর স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর লোগো উন্মোচন করেন।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্বে ভারতের প্রখ্যাত শাস্ত্রীয় সংগীতজ্ঞ পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর পরিবেশনায় বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করে নবনির্মিত রাগ ‘মৈত্রী’ পরিবেশনা, ‘পিতা দিয়েছে স্বাধীন স্বদেশ, কন্যা দিয়েছে আলো’ শীর্ষক থিমেটিক কোরিওগ্রাফি, ‘বিন্দু থেকে সিন্ধু’ শীর্ষক তিনটি কালজয়ী গান, ঢাক-ঢোলের সমবেত বাদ্য ও কোরিওগ্রাফি সহযোগে ‘বাংলাদেশের গর্জন : আজ শুনুক পুরো বিশ্ব’ পরিবেশন করা হয়।
স্বাস্থ্য অধিদফতরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ
মহান স্বাধীনতা দিবস, জাতীয় দিবস ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বাস্থ্য অধিদফতরের পুরনো ভবনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে নতুন ভবনে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে। আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা: নাসিমা সুলতানা। সঞ্চালনা করেন লাইন ডিরেক্টর ডা: আজিজুর রহমান সিদ্দিকী। উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালকসহ অন্যান্য পরিচালক।
বক্তারা বলেন, শোষণমুক্ত, দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে বঙ্গবন্ধু আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। প্রধাননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাঙালি জাতি আজ মাথা উঁচু করে বাঁচতে শিখেছে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের এই শুভক্ষণে বক্তারা সবাই মানুষের কল্যাণে নিবেদিতভাবে কাজ করে যাওয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

নিউজটি ভালো লেগে থাকলে শেয়ার করুণ

আর সংবাদ পরতে ...